শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
অফিসার্স ক্লাব থেকে রানীগঞ্জের তহশীলদারসহ ৪ জুয়াড়ি গ্রেফতার আজানের মর্মবানী জগন্নাথপুরে ২২তম ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সম্পন্ন জগন্নাথপুরে সেই সড়কে ২৩ কোটি টাকার টেন্ডার সম্পন্ন, নতুন বছরের শুরুতেই কাজ শুরু হতে পারে জগন্নাথপুরে ১৫ দিন পর অবশেষে ধান কেনা শুরু জগন্নাথপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে দুর্বৃত্তরা হত্যা করল স্টুডিও’র মালিক আনন্দকে সিলেট জেলা আ’লীগের নেতৃত্বে লুৎফুর-নাসির, মহানগরে মাসুক-জাকির প্রতিবন্ধীদের জন্য প্রতিটি উপজেলায় সহায়তা কেন্দ্র: প্রধানমন্ত্রী জগন্নাথপুর পৌরশহরে স্টুডিও দোকানদারের মরদেহ পাওয়া গেছে হিন্দুরাষ্ট্রের পথে ভারত: সংসদে বিজেপি নেতা

জগন্নাথপুরের মইয়ার হাওরে ধান কাটা শেষ পর্যায়ে, দুই বছর পর ধানের দেখা পেয়ে খুশি কৃষকরা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল, ২০১৮
  • ১০৭ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::
জগন্নাথপুরের দ্বিতীয় বৃহৎ মইয়ার হাওরে ধান কাটা প্রায় শেষ পর্যায়ে। এরই মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ ধান কাটা শেষ হয়ে গেছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন। এই মুহূর্তে ধান মাড়াই-ঝাড়া-ধান শুকানোর কাজে ব্যস্ত কৃষক কৃষাণী ও তাদের পরিবারের লোকজন।
গতকাল বুধবার হাওর ঘুরে দেখা যায়, হাওরের প্রায় ৮০ভাগ ধান কাটা শেষ হয়েছে। কর্ষ্টাজিত ফসল গোলায় তোলতে মাড়াই-ঝাড়া ও ধান শুকানোর কাজে ভোর থেকে সন্ধ্যা রাত পর্যন্ত ব্যস্ত কৃষক পরিবারের লোকজন।
কৃষকরা জানান, টানা দুই বছর প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে গোলায় বোরো ধান তোলতে পারেননি। এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ধান গোলায় তোলতে দুশ্চিন্তায় পড়তে হয়নি । প্রথম দিকে হাওরে শ্রমিক সংকট দেখা দিলেও কৃষকরা একে অপরের শ্রমিক দ্বারা ধান কাটার কাজে সহায়তা করায় শ্রমিক সংকট কাটিয়ে উঠা সম্ভব হয়েছে।
প্রায় ১৫/২০
দিন পূর্বে ধান কাটা শুরু হয়। এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। স্থানীয় কৃষকরা জানিয়েছেন মইয়ার হাওরে জগন্নাথপুর পৌরসভা, চিলাউড়া-হলদিপুর ও রানীগঞ্জ ইউনিয়নের প্রায় ১৫ হাজার কৃষক বোরো ধানের চাষাবাদ করেছেন। এ হাওরে ব্রি-২৮ ও ২৯ জাতের ধানসহ উচ্চ ফসলশীল ফসল আবাদ করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৯ জাতের ধান বাস্পার ফসল হয়েছে।
পৌরএলাকার ভবানীপুর গ্রামের কৃষক আসলাম উল্লাহ জগন্নাথপুর২৪ ডটকমকে বলেন, দুই বছর পর ফসলের দেখা পেয়ে খুব খুশি হয়েছি। ফলন ও ভালো হয়েছে। গত দুইবারের ফসল হারানোর কষ্ট এবার মুছবে। ২৮ কেদার জমিতে ব্রি-২৮ ও ২৯ জাতের বোরো ফসল চাষাবাদ করেছি। সব ফসল কাটা শেষ। এখন মাড়াই ও ধান শুকানোর কাজ চলছে। আশা করছি আর এক সপ্তাহের মধ্যে সব ধান গোলায় তোলা যাবে।
আরেক কৃষক আফসর উদ্দিন জগন্নাথপুর২৪ ডটকমকে জানান, অকাল বন্যায় গত দুই বছর ফসল গোলায় উঠেনি। এ বছর মইয়ার হাওরে ৫০ কেদার জমিতে আবাদ করেছি। বাস্পার ফলন হয়েছে। এখন ধান গোলায় তোলার কাজ চলছে।
হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির আহবায়ক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম জগন্নাথপুর২৪ ডটকমকে বলেন,পর পর দুই বছর ফসল হারানো কৃষকরা এখন ব্যস্ত তাদের কষ্টের ফসল ঘরে তোলতে। মইয়ার হাওরের ধান কাটা প্রায় ৮০ শতাংশ শেষ হয়েছে। তবে জেলার অন্যতম নলুয়া হাওরের ফসল এখনও ৫০ শতাংশ কাটার বাকি রয়েছে।

স্থানীয় উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর সুত্রে জানা যায়, অন্যান্য বছরের তুলনার এবার মইয়ার হাওরে চাষাবাদ কম করা হয়েছে। এ বছর এ হাওরে ১ হাজার ৫শত হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ করা হয়েছে।

জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার জগন্নাথপুর২৪ ডটকমকে বলেন, মইয়ার হাওরে প্রায় ৯০ শতাংশ ধান কাটা শেষ হয়েছে। দুই তিন দিনের মধ্যে পুরো হাওরের ধান কাটা শেষ হবে আশা করছি।

এবার হাওরে বাম্পার ফলন হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24