শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:০০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন ব্রিটেনের নির্বাচনে আফসানার বড় জয়ে জগন্নাথপুরে উৎসবের আমেজ ব্রিটিশ পালার্মেন্টে ঝড় তুলবে বিজয়ী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৪ নারী এমপি ব্রিটেনের নির্বাচনে একটি আসনে বিশাল জয় পেয়েছেন জগন্নাথপুরের আফসানা বেগম অপরাধীদের প্রতি মহানবীর আচরণ যেমন ছিল সুদখোরদের ধরতে জেলা ও উপজেলায় মাঠে নামছে প্রশাসন জগন্নাথপুরে হাওরের জরিপ কাজ শেষ, কাজের তুলনায় বরাদ্দ কম, প্রকল্প কমিটি হয়নি একটিও জগন্নাথপুরে ডিজিটাল বাংলাদেশ উপলক্ষ্যে র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ জগন্নাথপুরে শিশু সাব্বির হত্যার ঘটনার গ্রেফতার-১ এনটিভি ইউরোপের জগন্নাথপুর প্রতিনিধি নিয়োগ পেলেন আব্দুল হাই

সুনামগঞ্জ -১ আসনে শামিমা শাহরিয়ার প্রার্থীতা ঘোষনা

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ৭৬ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জ-১ (জামালগঞ্জ-ধর্মপাশা-তাহিরপুর-মধ্যনগর) আসনে প্রার্থী হবার জন্য জামালগঞ্জ উপজেলারই ৩ আওয়ামী পরিবারের সন্তান প্রকাশ্যে প্রচারণায় নেমেছেন। শনিবার সমাবেশ করে নিজের প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাচনাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম শামীম। কয়েক বছর ধরেই (বিগত জাতীয় নির্বাচনের আগে থেকেই) নির্বাচন করার আকাক্সক্ষা নিয়ে প্রচারণায় আছেন কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার, জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ইউসুফ আল আজাদও দলীয় মনোনয়ন চাইবেন এবং প্রার্থী হবার আকাক্সক্ষা নিয়ে প্রচারণা শুরু করেছেন।
ভোটের হিসাব অনুযায়ী সুনামগঞ্জ-১ আসনের তিন উপজেলার মধ্যে জামালগঞ্জে ভোট কম। কিন্তু আওয়ামী লীগের তিন মনোনয়ন প্রত্যাশী এখানে প্রকাশ্যে প্রচারণায় নামায় আগে-ভাগেই নির্বাচনী উত্তাপ তৈরি হয়েছে উপজেলাজুড়ে।
শনিবার সাচনাবাজার উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে রীতিমত নির্বাচনী সমাবেশ করেছেন আগ্রহী প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম শামীম। বেলা ২ টায় শুরু হওয়া এই সমাবেশে বিকালে শেষ হয়েছে। কমপক্ষে ৫০ জন বক্তা বক্তব্য দিয়েছেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী’র সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এম নবী হোসেনের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখার সময় রেজাউল করিম শামীম বলেন,‘আমি আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান, দল করতে গিয়ে আমার বাবাও জেল খেটেছেন, আমি ৩ বার জামালগঞ্জ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং জেলা আওয়ামী লীগের বিগত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলাম। আগামী জাতীয় নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-১ আসন থেকে আমি প্রার্থী হতে চাই। আপনারা মতামত দিলে আমি প্রচারণা শুরু করবো এবং আপনাদের প্রতিনিধিদের সাথে নিয়েই আমি দলীয় সভানেত্রী’র কাছে গিয়ে মনোনয়ন চাইবো’।
রেজাউল করিম শামীম জামালগঞ্জের সাচনাবাজার ইউনিয়নের সুখদেবপুরের বাসিন্দা। তাঁর বাবা মরহুম সাদেক আলীও আওয়ামী লীগের রাজনীতি করতেন এবং সাচনাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান ছিলেন।
একইভাবে জামালগঞ্জের ফেনারবাঁক ইউনিয়নের ফেনারবাঁক গ্রামের আওয়ামী লীগ পরিবারের আরেক গৃহবঁধু অ্যাডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার গত প্রায় ৭ বছর ধরে সুনামগঞ্জ-১ আসনের বিভিন্ন এলাকায় গণ-সংযোগসহ দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচিতে যোগদান করছেন। হাওরডুবির সময় এলাকায় এলাকায় ঘুরেছেন অ্যাডভোকেট শামীমা শাহ্রিয়ার। শনিবারও শামীমা শাহরিয়ার গণসংযোগে ফেনারবাঁকেই ছিলেন।
শামীমা শাহরিয়ার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা আলী আমজদ চৌধুরী’র ছেলে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শাহরিয়ার বিপ্লবের স্ত্রী। আলী আমজদ চৌধুরী ১৯৭৯ সালে সুনামগঞ্জ-১ আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন।
অ্যাডভোকেট শামীমা শাহ্রিয়ার বলেন,‘আমার নিজের এবং শ্বশুরবাড়ির পরিবারের সদস্যরা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গেই দীর্ঘদিন ধরে যুক্ত। শ্বশুর দলীয় মনোনয়নে সুনামগঞ্জ-১ আসনে নির্বাচন করেছেন। আমি আমার শ্বশুরের পথ ধরেই মানুষের সঙ্গে আছি। রাজনীতি করছি বঙ্গবন্ধু’র জ্যেষ্ঠ কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নের জন্য। আমি জামালগঞ্জের বাসিন্দা, তবে সুনামগঞ্জ-১ আসনের প্রত্যেকটি গ্রামই আমার নিজের মনে করি। বিগত জাতীয় নির্বাচনেও অনেকে মনোনয়ন চেয়েছেন, পেয়েছেন একজন। দলীয় সভানেত্রী’র কাছে আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য মনোনয়ন চাইবো। মনোনয়ন পেলে অন্যরা আমাকে সহায়তা করবেন প্রত্যাশা করছি। না পেলে নৌকার পক্ষেই প্রচারণায় থাকবো।’
অন্যদিকে, জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান উত্তর জামালগঞ্জ ইউনিয়নের কালীপুরের বাসিন্দা প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক আব্দুর রহমান তালুকদারের ছেলে ইউসুফ আল আজাদও আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য প্রকাশ্যে প্রচারণায় নেমেছেন।
ইউসুফ আল আজাদ অবশ্য বলেছেন,‘আগেও নৌকার পক্ষেই ছিলাম, শেষ জীবনে কোনভাবেই নৌকা ছাড়া অন্য কিছু বাইতে (চালাতে) চাই না। আমি মনোনয়ন প্রত্যাশী, পাইলে অন্যরা আমার সঙ্গে থাকবেন বলেই আমি প্রত্যাশা করি। বর্তমান সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনসহ অন্য কেউ পাইলেও আমি তাঁর সঙ্গেই থাকবো’।
এই ৩ জন ছাড়াও ধর্মপাশার বাসিন্দা সুনামগঞ্জ-১ আসনের দুই বারের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন নিয়মিত উন্নয়ন কার্যক্রমে যুক্ত থাকার পাশপাশি পুরো নির্বাচনী এলাকা চষে বেড়াচ্ছেন। এছাড়া অব. যুগ্ম সচিব বিনয় ভূষণ তালুকদার, সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, তাহিরপুরের বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট রঞ্জিত সরকার এই আসনের এলাকায় এলাকায় প্রকাশ্যে প্রচারণায় রয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24