বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে পরিকল্পনামন্ত্রী-ক্ষমতায় আসতে না পেরে একটি মহল গুজব ছড়াচ্ছে মিরপুর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শেরীন শপথ নেবেন ২৫ নভেম্বর দক্ষিণ সুরমার একাধিক মামলার আসামি গ্রেফতার সাহাবাদের যুগে শিশুদের শিক্ষায় অধিক গুরুত্ব দেওয়া হতো জগন্নাথপুরের সন্তান অতিরিক্ত সচিব শিশির রায় কে ফুলেল শ্রদ্ধায় চীরবিদায় সিলেটে হিরন মাহমুদ নিপু আটক তারেক জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে জগন্নাথপুরে ছাত্রদলের এতিমদের মধ্যে খাদ্য বিতরণ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সসীমের অসহায়ত্ব -মোহাম্মদ হরমুজ আলী তারেক জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে জগন্নাথপুরে বিএনপির দোয়া মাহফিল পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান জগন্নাথপুরে কাল আসছেন

চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিন বাংলাদেশ

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২৫ মার্চ, ২০১৭
  • ৩৬ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: টেস্ট সিরিজের সাফল্যের ছন্দটা ওয়ানডেতেও টেনে আনল বাংলাদেশ। সিরিজের প্রথম ম্যাচের নিষ্পত্তি হওয়া এখনো ঢের বাকি। কেবলই ইনিংসের মাঝপথ। তবে ডাম্বুলায় বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করে পেয়েছে ভালো পুঁজি। মাশরাফির দল ৫ উইকেটে ৩২৪ রান করেছে। দিবারাত্রির ম্যাচ, শিশির বড় প্রভাবক হয়ে উঠতে পারে, এসব মাথায় রেখেও বলতে হচ্ছে, তরুণ শ্রীলঙ্কা দলের জন্য এ অনেক বড় এক চ্যালেঞ্জ।
বাংলাদেশের ইনিংসের মূল কারিগর তামিম। তামিম করেছেন ১২৭ রান। বাঁ হাতি ওপেনার দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন দুজন। সাকিব আল হাসান করেছেন ৭২। সাব্বির রহমান করেছেন ৫৪।
সৌম্য সরকার ১০ রান করে ফিরে যাওয়ার পর সাব্বিরের সঙ্গে ৯০ রানের জুটি গড়েন তামিম। তাতে সাব্বিরই ছিলেন চালকের ভূমিকায়। ৫৬ বলের ইনিংসটায় সাব্বির মেরেছেন চোখে লেগে থাকা ১০টি চার। পরপর দুই ওভারে সাব্বির ও মুশফিকুর রহিম (১) ফিরে গেলে একটু চাপে পড়ে বাংলাদেশ। সেখানেই জুটি বাঁধেন তামিম-সাকিব। ১৪৪ রানের জুটিটা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যেকোনো উইকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ। শেষ ১০ ওভারে বাংলাদেশ তুলেছে ১০৯ রান। কেবল শেষ ৬ ওভারে এসেছে ৮৩ রান। মোসাদ্দেকের ৯ বলের ২৪ রানের ছোট কিন্তু ঝোড়ো ইনিংসটা ছিল এই ঝড়ের ‌নিন্মচাপ!
তাতেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ নিজেদের সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটা নতুন করে লেখাল। শুরু থেকে একপ্রান্ত ধরে রেখে খেলে তামিমই রাখলেন মূল ভূমিকা। ১৪২ বলের ইনিংসটায় মেরেছেন ১৫টি চার, ছয় একটি। ৪৮তম ওভারে আউট হওয়ার আগে বাংলাদেশকে দিয়ে গেছেন ৩০০-র গতিপথ।
অবশেষে উত্তরটা তামিম খুঁজে পেয়েছেন ডাম্বুলায় এসে। সেঞ্চুরির তৃষ্ণাটা মেটাতে বাঁহাতি ওপেনার শুরুতেই এগিয়েছেন ধীর-লয়ে। প্রথম ৭ বলে রান ২। জড়তা কাটিয়েছেন লাহিরু কুমারাকে প্রথম বাউন্ডারিটা মেরে। ফিফটি করেছেন ৭৬ বলে। পরের ৫০ করতে লেগেছ ৫১ বল। যেটি তাঁর ৮ম ওয়ানডে সেঞ্চুরি, আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ১৭তম। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয়। তিন সংস্করণ মিলিয়ে প্রথম বাংলাদেশের ব্যাটসম্যান হিসেবে ১০ হাজার রান করার দিনটা দারুণভাবে স্মরণীয় করে রাখলেন তামিম।

ঠিক চার বছর আগে শ্রীলঙ্কায় আগের সফরে হাম্বানটোটায় ফিফটির গোলকধাঁধা থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন তামিম। তিন বছরের সেঞ্চুরি-খরা ঘোচানোর সেই ম্যাচে অবশ্য বাংলাদেশ হেরেছিল। আজ তামিম নিশ্চয়ই জয় দিয়েই ম্যাচটা স্মরণীয় করে রাখতে চাইবেন। সুত্র প্রথম আলো।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24